নিজস্ব প্রতিনিধি : অর্জুন সিং কে 6 বছরের জন্য সাসপেন্ড করল তৃণমূল কংগ্রেস। তৃণমূল কংগ্রেসের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় আজ সাংবাদিক বৈঠকে বলেন যে অর্জুন সিং মমতা ব্যানার্জির আশীর্বাদে বিধায়ক হয়েছিলেন। কিন্ত দল বিরোধী কাজ করে তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেছে। সেই জন্য আপাতত অর্জুন সিং কে তৃণমূল কংগ্রেস থেকে 6 বছরের জন্য বহিষ্কার করা হল। তার ভাই সঞ্জয় সিং কে দলে জায়গা দেওয়া হবে বলেও পার্থ চট্টোপাধ্যায় ঘোষণা করলেন। গতকাল অর্জুন সিং এর বিজেপিতে যোগ দেয়া প্রসঙ্গে কলকাতার মহানাগরিক ফিরহাদ হাকিম বলেন – মমতা ব্যানার্জীর আশীর্বাদ ছিল বলে অর্জুন সিং ভোটে জিতে ছিল এবং সে একদিন আগেও মমতা ব্যানার্জির সঙ্গে ফোনে কথা বলেছিল। সামনে লোকসভা ভোটে তাকে ঝাড়খণ্ডের নির্বাচনের দায়িত্বও দেয়া হয়েছিল ,সেসময় তিনি এ কথাগুলো বলেন নি কেন ? মমতা ব্যানার্জীর আশীর্বাদ না থাকলে তিনি বিধায়ক হতেন না। তার বিজেপিতে যোগদান নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস মোটেও চিন্তিত নয়। ভাটপাড়া পৌরসভা আমাদের ছিল আমাদেরই থাকবে ,এখন প্রশ্ন উঠছে যে পার্থ চট্টোপাধ্যায় অর্জুন সিং কে ৬ বছরের জন্য বহিষ্কার করলেন কেন ? যখন কোন রাজনৈতিক ব্যক্তি সেই দল ছেড়ে অন্য দলে চলে যায় সেই ক্ষেত্রে তাকে পুরোপুরি দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। কিন্তু ছয় বছরের জন্য বহিষ্কার করা হবে কেন ? তাহলে কি বিজেপির সঙ্গে কোনো রকম আঁতাত করা হয়েছে এই ব্যাপারে প্রশ্ন উঠছে রাজনৈতিক মহল থেকে। এবং ছয় বছর পরেও যদি অর্জুন সিং দলে ফিরতে চায় তাহলে কি দল আবার তাকে নিতে পারে ?

Leave a Reply