বাংলা নিউজ ২৪x৭ : বিগত কিছুদিন ধরেই রাজ্য রাজনীতিতে ও সোশ্যাল মিডিয়াতে একটি খবর ঘুরে বেড়াচ্ছিল, অভিষেক ব্যানার্জি স্ত্রী দু কেজি সোনা সহ হাতে নাতে ধরা পড়েছিল দমদম এয়ারপোর্ট এর কাস্টম অফিসার দের কাছে। কিন্তু এই খবরের সত্যতা কতটুকু তা নিয়ে রাজ্য রাজনীতিতে জল্পনা ছিল তুঙ্গে।
গতকাল কাস্টম পুলিশের তরফ থেকে অভিষেক ব্যানার্জীর স্ত্রীর নামে এফআইআর করা হয়। এফ আই আর এর এই সংবাদ তুলে ধরে টুইট করেছিলেন সিপিআইএম নেতা সুজন চক্রবর্তী।
আজ সেই সমস্ত জল্পনার জবাব দিতে দক্ষিণ ২৪ পরগনার আমতলায় সাংবাদিক বৈঠক করেন সাংসদ অভিষেক ব্যানার্জি।তিনি বলেন সিপিআইএম কংগ্রেস ,বিজেপি যৌথভাবে পার্টিকে বদনাম করার জন্য এরকম খবর রটাচ্ছে। যদিও এই খবরের কোন ভিত্তি নেই। যদি সেদিন সোনা সহ এয়ারপোর্টে ধরা পড়তো তাহলে এয়ারপোর্টের অফিসাররা সেই সোনা বাজেয়াপ্ত করল না কেন? এবং সাহস থাকলে অফিসাররা সেই সময়কার সিসিটিভি ফুটেজ বের করুক। যদি প্রমাণ করতে পারে তাহলে আমি রাজনীতি ছেড়ে দেব। এবং তার পরেই একটি টুইটের পরিপ্রেক্ষিতে সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে মানহানির মামলার একটি নোটিশ পাঠানো হয়েছে। ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে টুইট তুলে না নিলে মানহানির মামলা করা হবে বলে জানান তিনি।
অভিষেক ব্যানার্জীর পাল্টা আজ বারুইপুরে সিপিআইএম পার্টি অফিসে যাদবপুর কেন্দ্রের প্রার্থী বিকাশ রঞ্জন ভট্টাচার্য সঙ্গে নিয়ে সাংবাদিক বৈঠক করেন সুজন চক্রবর্তী। তিনি বলেন টুইট তুলে নেয়া হবে না। দম থাকলে আমার বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করুক ,এবং তিনি আরো বলেন যে কাস্টম অফিসার রা এফআইআর করেছেন তার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত হোক কোটের তত্ত্বাবধানে। আমরা চাইছি আসল সত্যটা বেরিয়ে আসুক। তিনি বলেন যে কাস্টমস অফিসাররা চাইলেই যেকোনো ব্যক্তিকে তল্লাশি চালাতে পারে। সেই সময় রাজ্য পুলিশের এক বিশাল বাহিনী এয়ারপোর্ট চত্বরে ছুটে গিয়েছিল কেন? তার জবাব দিক অভিষেক। এয়ারপোর্টের কাস্টম অফিসাররা যে এফআইআর করেছেন তার গতি প্রকৃতি নিয়ে আমরা সজাগ থাকবো।
সুজন চক্রবর্তী অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় কে কটাক্ষ করে আজ বলেন – যাদের মান থাকে তাদের মানহানি হয়, আর যাদের মান নেই তাদের মানহানি হয় না। অতএব আমি আমার জায়গা থেকে বিন্দুমাত্র সরছিনা। আমরা চাই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় মামলা করুক এবং আমরা সমস্ত রকম তথ্য নিয়ে তার বিরুদ্ধে লড়ব।
তিনি এটাও বলেন দু কেজি সোনা ছিলনা ১০ কেজি সোনা ছিল তাও আমরা কোটে জানাবে।
যাইহোক রাজ্য রাজনীতিতে এই দুই পক্ষের ক্রিয়া প্রতিক্রিয়া নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে। এখন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সুজন চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেন কিনা সেটাই এখন দেখার।

Leave a Reply