নিজস্ব প্রতিনিধি : ভোটের পরে আর কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকবে না হুঁশিয়ারি উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ এর। এক জনসভায় তিনি বলেন – ভোটের পর আর কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকবে না আমরা কিন্তু সারা বছর থাকবো ,তাই মনে করে জোড়া ফুলে ভোট দেবেন।
লোকসভা ভোট এর বাজনা বেজে গিয়েছে। শাসক বিরোধী দলের মধ্যে তরজাও শুরু হয়েছে। একে অপরকে দোষারোপ করতে ব্যস্ত। এরই মধ্যে ভোটের দেড় মাস আগে কেন্দ্রীয় বাহিনীর রুট মার্চ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তৃণমূলের রাজ্যসভার সংসদ ডেরেক ও ব্রায়েন। এছাড়া মেয়র ফিরহাদ হাকিম বলেন কেন্দ্রীয় বাহিনী বিভিন্ন জায়গায় ভোটারদের ভয় দেখাচ্ছে। এর ফলে রাজ্যের শান্তি বিঘ্নিত হতে পারে।


আজ বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল বলেন – কেন্দ্রীয় বাহিনীকে কেউ ভয় পাবেন না। তারা তাদের মত কাজ করবে। আপনি আপনার মত কাজ করুন। কেন্দ্রীয় বাহিনীদের স্যালুট জানাবেন। কেন্দ্রীয় বাহিনী নিরপেক্ষ কাজ করবে। মোদির দালালি চামচাগিরি তারা যেন না করে। বুথে নকুলদানা রাখবেন।
রাজ্যের ৪২ টা আসনের ভোট শুরু হবে ১১ এপ্রিল থেকে। পশ্চিমবঙ্গের প্রথম সাত দফায় ভোট হতে চলেছে এবং ১৩৫ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী রাজ্যে ইতিমধ্যেই ঢুকে পড়েছে। কেন্দ্রীয় বাহিনী শহর ও শহরতলীতে পাড়ায় পাড়ায় রুট মার্চ করছে আর তাতেই বেজায় চটেছে রাজ্যের শাসক দলের নেতাকর্মীরা।

Leave a Reply