রাজ্যজুড়ে গুজব-এর সংক্রমনে কড়া বার্তা প্রশাষনের

0
72

রিপোর্টার জয়মাল্য দেশমুখ : শুরু হয়েছিল জেলা থেকে,সেই গুজবের আঁচ লাগতে শুরু করেছে শহর কালকাতাতেও।কোথাও ছেলেধরা-র অভিযোগ,কোথাও বা কিডনি কেটে নেওয়ার অভিযোগ।কিন্তু সব অভিযোগেরই ভিত্তি শুধুমাত্র সন্দেহ।আর এই সন্দেহের বশেই মানুষকে গণ-পিটুনি দেওয়ার অভিযোগ উঠছে।
টার্গেট হয়ে উঠছেন কিছু ভবঘুরে মানুষ,যাদের আচরনকে সাধারন ভাবে সন্দহজনক মনে করে নেওয়া হচ্ছে।সমাজের এক শ্রেণী-র মানুষ শুধুমাত্র সন্দেহের বশবর্তী হয়েই এই ধরনের গণপিটুনি-র ঘটনা ঘটাচ্ছেন বলে অভিযোগ।যদিও প্রশাষনের পক্ষ থেকে বারবার কড়া বার্তা দেওয়া হচ্ছে এই ধরনের ঘটনার ক্ষেত্রে।খোদ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এই ধরনের ঘটনা রুখতে পুলিশ-প্রশাষনকে সতর্ক থাকতে বলেছেন।সূত্রের খবর,গোটা রাজ্যে পুলিশ এখনও পর্যন্ত গণপিটুনি-র ঘটনায় ৭০-এর বেশি মানুষকে অভিযুক্ত হিসেবে গ্রেপ্তার করেছে,২০ টির বেশি মামলা ইতিমধ্যে রুজু করা হয়েছে।লাগাতার পুলিশ-প্রশাষন গুজব না ছড়ানো ও গুজবে কান না দেওয়ার জন্য প্রচার করে চলেছে রাজ্যবাসীর কাছে।
মনোবিদদের মতে এই ধরনের ঘটনায়,এক শ্রেণীর মানুষের হিংস্রতা-র ই প্রকাশ ঘটছে।তারা নিজেরাই সমাজের নীতি-পুলিশের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়ে মারধোর করছেন।প্রশাষনের কড়া নজরদারী ও সচেতনতামূলক প্রচার ছাড়া একে আটকানো যাবে না।
ইতিমধ্যেই রাজ্য প্রশাষন নবান্নে ২৪ ঘন্টার কন্ট্রোলরুম খুলেছে।এছাড়াও বিভিন্ন স্যোসাল মিডিয়ায় নজর রাখতে শুরু করেছে।তারা আবেদন করেছেন যে,কাউকে সন্দেহ হলে আইন নিজের হাতে তুলে না নিয়ে পুলিশ-প্রশাষনের কাছে খবর দিতে।

Leave a Reply