বাংলা নিউজ ২৪x৭ : রাফায়েল নিয়ে বিস্তর চাপানউতোর তুঙ্গে এর মাঝখানে রাফায়েল সংক্রান্ত ফাইল চুরি হয়ে গেল প্রতিরক্ষা দপ্তর থেকে। সুপ্রিম কোর্টেহলফনামা দিয়ে জানালো অ্যাটর্নি জেনারেল। বিরোধী শিবির বরাবরই জানিয়েছে রাফায়েল চুক্তি তে কেন্দ্রীয় সরকারের হাত ছিল এবং এই হাত থাকে থাকার ফলে সরকারি সংস্থা হ্যাল কে সরিয়ে অনিল আম্বানি বরাত পেয়েছিল এবং এই বরাত এর ফলে অনিল আম্বানি 30 হাজার কোটি টাকা মুনাফা করবে। প্রথম মামলায় সুপ্রিম কোট কেন্দ্রের কাছে মুখ বন্ধ খামে চুক্তির বিষয়বস্তু জানতে চেয়েছিল। সেই মতো জানানো হয়েছিল। সুপ্রিম কোর্ট রায়ে বলেছিল যে রাফায়েল সংক্রান্ত কোন প্রশ্ন কেউ করতে পারবে না চুক্তি সঠিক ছিল। তার পরিপ্রেক্ষিতে রায় পুনর্বিবেচনার আর্জি জানিয়েছিল সুপ্রিম কোর্টের বর্ষীয়ান আইনজীবী প্রশান্ত ভূষণ। তিনি সুপ্রিম কোর্টে জানান যে রাফায়েল চুক্তি সংক্রান্ত যে রায় সুপ্রিম কোর্ট আগে দিয়েছিল তা পুনর্বিবেচনা করা হোক। সেই পুনর্বিবেচনার শুনানি মঙ্গলবার। মঙ্গলবার সেই শুনানিতে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে জেনারেল বলেন যে রাফায়েল চুক্তি সংক্রান্ত ফাইল চুরি গিয়েছে প্রতিরক্ষা দপ্তর থেকে এবং এই চুরির ক্ষেত্রে কোন ও অবসরপ্রাপ্ত ও কর্মরত কর্মীরাই দায়ী এবং সরকার তদন্ত শুরু করেছে। সরকারের এই হলফনামায় সঙ্গে সঙ্গে এই আসরে নেমে পড়েছে বিরোধীরা। তারা বলেন একটা হাইসিকিউরিটি নিরাপত্তা বলয় থেকে একটা তো গুরুত্বপূর্ণ চুক্তির ফাইল চুরি যায় কিভাবে ? সেক্ষেত্রে তারা বলতে থাকে চৌকিদারি চোর হ্যায়। বিরোধীরা প্রধানমন্ত্রীর উপরে দায় চাপিয়েছে। সিপিএম নেতা সীতারাম ইয়েচুরি বলেন যে খোদ প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর দপ্তর থেকে যদি এত গুরুত্বপূর্ণ ফাইল চুরি হয়ে যায় তাহলে চিন্তা করুন এই সরকার মানুষের নিরাপত্তা দেবে কি করে ?কেউ কেউ মনে করছে যে রাফায়েল চুক্তি প্রকাশ্যে আসলে আসল সত্য ফাঁস হয়ে যেতে পারে সেই ভয়েই কেন্দ্রীয় সরকার এটাকে সরিয়ে ফেলতে পারে। যাই হোক কংগ্রেসের রাহুল গান্ধী প্রতিটি জনসভায় এই রাফায়েল চুক্তি নিয়ে জনসমক্ষে বলতে থাকেন যে চৌকিদার চোর হ্যায়

Leave a Reply