বাংলা নিউজ ওয়েব ডেস্ক : সদ্য প্রকাশিত নির্বাচন কমিশনের রিপোর্ট অনুযায়ী,ভোটের প্রাক্কালে এখনও পর্যন্ত প্রায় ২ হাজার দুশো পঞ্চাশ কোটি নগদ টাকা উদ্ধার হয়েছে।এই রিপোর্ট বাইরে আসতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে রাজনৈতিক মহলে।কমিশনের হিসেব অনুযায়ী এই বিপুল পরিমান নগদ টাকার সাথে উদ্ধার হয়েছে সোনা-রুপো সহ আরও অনেক সামগ্রী।নির্বাচন-কে প্রভাবিত করার জন্যই এই টাকা ব্যবহার করা হত,বলে কমিশনের ধারনা।


রাজনৈতিক ক্ষেত্রে অবৈধ টাকা খরচ-এর অভিযোগে আগেও সরগরম হয়েছে দেশের রাজনীতি।প্রধানমন্ত্রী-র হেলিকপ্টার থেকে কালো বাক্স নামার ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ায়।কংগ্রেস কালো টাকা পাচারের অভিযোগে সরব হয়ে কমিশনের দারস্থ হয়।গতকালি রাহুল গান্ধী প্রশ্ন তোলেন বিজেপি-র প্রচারে এত টাকা আসছে কোথা থেকে।


প্রায় প্রতিদিনই আয়কর দপ্তরের হানায় উদ্ধার হচ্ছে বেআইনি টাকা।দক্ষিনের বিভিন্ন রাজ্যের রাজনৈতিক নেতাদের ঘনিষ্ঠদের কাছ থেকে টাকা পাওয়া যাচ্ছে।এই পরিপ্রেক্ষিতে সতর্ক নির্বাচন কমিশন।একটি জায়গায় নির্বাচন স্থগিত করার-ও সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা।এই পরিস্থিতিতে অর্থ শক্তিকে মোকাবিলা করে অবাধ নির্বাচন পরিচালনা করাই কমিশনের চ্যালেঞ্জ।

Leave a Reply