পাহাড়ে এলেন না গুরুঙ্গ:

0
139

জয়মাল্য দেশমুখ : পাহাড়ে ফেরার জল্পনা উস্কে দিয়েও পিছিয়ে এলেন বিমল গুরুঙ্গ,রোশন গিরি-রা।অডিও ও ভিডিও বার্তায় পাহাড়ের এই বিতর্কিত নেতারা জানিয়েছিলেন গতকাল দুপুরে বিমানে বাগডোগরা বিমানবন্দরে তারা নামবেন।তাদের এই আসার খবর প্রকাশ্যে আসার পরেই চরম তৎপরতা শুরু করে দেয় দার্জিলিং জেলার পুলিশ-প্রশাষন।বাগডোগরা বিমাবন্দরকে কার্যত ত্রী-স্তরীয় নিরাপত্তায় মুড়ে ফেলা হয়।কানাঘুষো শোনা যায়,বিমল-রা বিমানবন্দরে নামলেই তাদের গ্রেপ্তার করা হতে পারে।
বিমল গুরুঙ্গ ও তার সাথীরা ২০১৭ সালে দার্জিলিং-এ রাজভবনে হামলা ও পুলিশ অফিসার খুনের অভিযোগে পাহাড় ছাড়া।নির্বাচনের আগে আবার পাহাড়ে ফিরে নিজেদের রাজনেতিক ও গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করতে চেয়ে সুপ্রিম কোর্ট-এ আবেদন করেন বিমল।একি সঙ্গে রাজ্য সরকারের একাধীক জামিন অযোগ্য মামলা থেকেও আগাম জামিন চান।কিন্তু সুপ্রিম কোর্ট তার আর্জি না শুনে কলকাতা হাইকোর্টের কাছে ফেরত পাঠায়।৪ -দিন এর মধ্যে আবেদন করার নির্দেশও দেন।
সেই মতোই কাল পশ্চিমবঙ্গে ফিরে হাইকোর্ট-এ আবেদন করতে পারেন তিনি-এই মর্মে জল্পনা ছড়িয়ে পরে।বিমানে তার নামে টিকিট কাটা থাকলেও বিমানে ওঠেন নি গুরুঙ্গ।বাগডোগরায় নামলে রাজ্য পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করতে পারে,এই আশঙ্কাতেই তার এই পিছিয়ে আসা বলে,ওয়াকিবহাল মহলের ধারনা।গুরুঙ্গ পাহাড়ে ফিরলে আবার অশান্তি ছড়াতে পারে বলে রাজ্য প্রশাষনের ধারনা।
যদিও আজ জলপাইগুড়ি-তে কলকাতা হাইকোর্ট-এর সার্কিট বেঞ্চ-এ আগাম জামিনের আবেদন করেন তার আইনজীবি।হাইকোর্ট-এই আবেদন এর শুনানি পিছিয়ে দিয়েছে।বিজেপি অবশ্য গুরুঙ্গ-কে সামনে রেখেই দার্জিলিং-এর নির্বাচনে ঝাঁপাতে চাইছে।আজ মুখ্যমন্ত্রী তাই কোচবিহার থেকে নাম করে বিমল গুরুঙ্গ-এর বিরুদ্ধে বার্তা দেন।

Leave a Reply